বুধবার, ২৪ Jul ২০২৪, ০৮:৩৯ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
চট্টগ্রামস্থ ছাগলনাইয়া সমিতির আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল বিশেষ অভিযানে ৬ গ্যাংয়ের ৩৩ জন আটক, দেশী অস্ত্র উদ্ধার ভালো আছেন খালেদা জিয়া ঈদকে ঘিরে জাল নোট গছিয়ে দিত ওরা কুতুব‌দিয়ায় নতুন জামা পেল ১৩৫ এতিম ছাত্র-ছাত্রী মানিকছড়িতে গণ ইফতার মাহফিল সীতাকুণ্ডে লরি চাপায় পথচারী যুবক নিহত সীতাকুণ্ডে পানিতে পড়ে শিশুর মৃত্যু রামগড়ে প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে বিজিবির পুরস্কার ও সনদ বিতরন লাইসেন্স বিহীন ফিলিং স্টেশন স্থাপন করে কার্ভাড ভ্যানে চলছে অবৈধ গ্যাস বিক্রি কাপ্তাই ব্লাড ব্যাংকের উদ্যোগে জনসচেতনতামূলক বিশেষ ক্যাম্পেইন জিম্মি নাবিকদের উদ্ধারে জাহাজের মালিকপক্ষের নতুন ঘোষণা
বান্দরবানে প্রকাশ্যে স্কেভেটার দিয়ে পাহাড় কাটছে প্রভাবশালীরা

বান্দরবানে প্রকাশ্যে স্কেভেটার দিয়ে পাহাড় কাটছে প্রভাবশালীরা

নিজস্ব প্রতিনিধি, বান্দরবানঃ মৃত্যুর মিছিল দীর্ঘ হওয়ার পরও বান্দরবানে পাহাড় কাটা বন্ধ করা যাচ্ছে না। স্কেভেটার দিয়ে পাহাড় কেটে মাটি বিক্রি প্রতিযোগীতায় নেমেছে ক্ষমতাসীন দলের ছত্রছায়ায় একটি সিন্ডিকেট।

বুধবার সকালেও জেলা পৌর এলাকার কালাঘাটায় বাহাদুর নগরে গিয়ে দেখাগেছে, পৌরসভার উন্নয়ন কাজের নাম ভাঙ্গিয়ে স্কেভেটার দিয়ে বিশাল একটি পাহাড় কাটা হচ্ছে। পাহাড় কেটে ৫টি ট্রাক দিয়ে পাহাড়ের মাটি জলাশয় এবং নীচু জমি ভরাটের জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। প্রতি ট্রাক মাটি ১৫ থেকে ১৬শ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। দিনে দুপুরে প্রকাশে স্কেভেটার দিয়ে জেলা শহরের অভ্যন্তরে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী চোখের সামনে অবৈধভাবে অনুমোদন ছাড়া পাহাড় কাটা হলেও যেন দেখার কেউ নেই।

প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নিরব ভূমিকায় বান্দরবানে পাহাড় কাটার ঘটনা বাড়ছে অভিযোগ স্থানীয়দের। বাহাদুর নগরে শুধু একটি স্থানে নয়, বসতি স্থাপনের জন্য নগরের চারপাশে পাহাড় কেটে জায়গা সমান করার রীতিমত প্রতিযোগীয় নেমেছে প্রভাবশালীরা। কালাঘাটা নতুন ব্রীজ এলাকায় এবং বড়–য়াটেক এলাকায়ও কয়েকটি স্থানে পাহাড় কাটা হচ্ছে শ্রমিক দিয়ে।

নাম প্রকাশে অনিশ্চুক স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দার অভিযোগ করে বলেন, আওয়ামীলীগের নেতাদের ছত্রছায়ায় টিটু বড়–য়া’সহ কয়েকজন বাহাদুর নগর’সহ আশপাশের এলাকাগুলোর পাহাড় কেটে মাটি বিক্রি ব্যবসা করছে। পাহাড় কেটে দেয়ার জন্য জমির মালিকের কাছ থেকে টাকা নিচ্ছেন এবং পাহাড় কাটা মাটি বিক্রি করেও টাকা পাচ্ছেন। স্কেভেটার দিয়ে পাহাড় কাটার কারণে বসতি স্থাপনের জন্যও আরো অনেকে শ্রমিক দিয়ে পাহাড় কাটছে।

গতবছরও বান্দরবানের কালাঘাটায় পাহাড় ধসে ৬ জন’সহ জেলায় ১৪ জনের মৃত্যু হয়। কিন্তু তারপরও পাহাড় কাটা বন্ধ হচ্ছেনা। সিন্ডিকেটের সদস্য টিটু বড়–য়া বলেন, উন্নয়ন কাজের জন্য পৌরসভার দেখিয়ে দেয়া জায়গায় স্কেভেটার দিয়ে পাহাড় কাটা হচ্ছে। পাহাড়ের মাটি বিক্রি করে আমরা দুটো পয়সা রোজগার করি।

তবে পৌরসভার সচিব তৌহিদুল ইসলাম বলেন, বাহাদুর নগরে রাস্তা তৈরির উন্নয়নের জন্য কিছুস্থানে পাহাড় কাটা হয়েছে। তবে অন্যদিকে পাহাড় কাটার ব্যাপারে আমরা জানানেই। তার দায়িত্বও পৌরসভা কর্তৃপক্ষ নিবেনা।

এ ব্যাপারে বান্দরবান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শারমিন আক্তার জানান, পাহাড় কাটার কোনো অনুমতি নেই। অবৈধভাবে পাহাড় কাটা বন্ধে দ্রুতই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT